বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২

সরকার রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে জনগণে সকল অধিকারকে কেড়ে নিয়েছে : ডা. শাহাদাত

প্রকাশিত: শুক্রবার, অক্টোবর ৭, ২০২২

নগর প্রতিবেদক::

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহবায়ক ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, আগামী ১২ অক্টোবরের জনসভা জনসমুদ্রে রূপ নিবে। ১২ই অক্টোবর চট্টগ্রাম বিভাগীয় সমাবেশ হবে জনগণের মৌলিক ও গণতান্ত্রিক অধিকার রক্ষার সমাবেশ। এই সরকার দীর্ঘ এক যুগের অধিক সময় জনগণের সকল মৌলিক অধিকার কেড়ে নিয়েছে। দেশে আজ গণতন্ত্র নেই, মানুষের বাক স্বাধীনতা নেই, ভোটাধিকার নেই। আইনের শাসন বলতে কিছুই নেই। সরকার রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে জনগণে সকল অধিকারকে কেড়ে নিয়েছে। দেশের সবকিছু আজ চরম উর্ধ্বগতিতে, মানুষ ঠিকমতো একবেলা খেতে পারছে না।

তিনি বলেন, সরকার নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের উর্ধ্বগতি নিয়ন্ত্রণে সরকার ব্যর্থ হয়েছে। জনগণের সমস্যা সমাধানে তাদের মাথা ব্যাথা নেই। তাদের মাথাব্যাথা হয়েছে আবারো কিভাবে অবৈধভাবে ক্ষমতায় টিকে থাকবে। এই সরকার আবারো ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য বিভিন্ন কুটকৌশল অবলম্বন করছে। জনগণের দাবিতে বিএনপি যখন মাঠে নেমেছে তারা জনগণের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে। চলমান গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে দমন করার জন্য এ সরকার প্রশাসন ও আওয়ামী সন্ত্রাসী বাহিনীকে ব্যবহার করছে। অথচ বর্তমান গণআন্দোলন চলছে মানুষের ভোটাধিকার পুনরুদ্ধার , মানবাধিকার লঙ্ঘন বন্ধ করা, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি ও মূল্যস্ফীতির বিরুদ্ধে। চলমান আন্দোলনে গত জুলাই থেকে আমাদের দলের ৫জন নেতা পুলিশ ও আওয়ামী সন্ত্রাসীদের গুলিতে নির্মমভাবে মৃত্যু বরণ করেছে। তারপরও জনগণের এই আন্দোলন বন্ধ তো হচ্ছে না বরং দিনে দিনে আন্দোলনের গতি বৃদ্ধি পাচ্ছে।

আজ শুক্রবার (৭অক্টোবর) বিকালে আগামী ১২ই অক্টোবর বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশ সফল করার লক্ষ্যে নাসিমন ভবনস্থ দলীয় কার্যালয়ে মহানগর বিএনপির আহবায়ক কমিটির প্রস্তুতিসভায় সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, ১২ই অক্টোবর সমাবেশের জন্য আপনাদের প্রস্তুতি নিতে হবে। সমাবেশকে সফল ও সার্থক করতে হবে। তাই ৫ টি উপ-কমিটি গঠন করছি। প্রচার উপ কমিটিতে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সিঃ যুগ্ম আহবায়ক এম এ আজিজকে আহবায়ক, দপ্তর উপ-কমিটিতে যুগ্ম আহ্বায়ক মোঃ মিয়া ভোলাকে আহবায়ক, শৃঙ্খলা উপ-কমিটিতে যুগ্ন আহবায়ক নাজিবুর রহমানকে আহবায়ক, অভ্যথর্না উপ-কমিটিতে যুগ্ন আহবায়ক এ্যাডভোকেট আব্দুর সাত্তারকে আহ্বায়ক, আপ্যায়ন উপ-কমিটিতে যুগ্ন আহ্বায়ক এস এম সাইফুলকে আহ্বায়ক করে মোট পাঁচটি উপ-কমিটি ঘোষণা করেন তিনি।

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব আবুল হাসেম বক্কর বলেন, এই সমাবেশ আমাদের জন্য ঐতিহাসিক সমাবেশ হিসেবে পরিণত করতে হবে। তাই আমাদের মহানগর বিএনপির নেতৃবৃন্দদের দায়িত্ব্ অনেক বেশি। আপনাদেরকে যথাযথ দায়িত্ব পালন করে সমাবেশকে সফল ও সার্থক করতে হবে। চট্টগ্রামের মানুষ প্রস্তুতিতে শুরু করেছে। আগামী ১২ অক্টোবর তারিখের সমাবেশে প্রতিটি ওয়ার্ড থেকে মিছিলে মিছিলে সমাবেশে যোগ দেওয়ার জন্য প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যেতে হবে।

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহবায়ক কমিটির প্রস্তুতি সভায় উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সি. যুগ্ম আহবায়ক আলহাজ্ব এমএ আজিজ, যুগ্ম আহবায়ক মোহাম্মদ মিয়া ভোলা, এড. আবদুস সাত্তার, সৈয়দ আজম উদ্দীন, এস এম সাইফুল আলম, এসকে খোদা তোতন, নাজিমুর রহমান, শফিকুর রহমান স্বপন, কাজী বেলাল উদ্দিন, ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, মো. শাহ আলম, ইসকান্দর মির্জা, আবদুল মান্নান, আহবায়ক কমিটির সদস্য এরশাদ উল্লাহ, জয়নাল আবেদীন জিয়া, হারুন জামান, হাজী মো. আলী, মাহবুব আলম, এড মুফিজুল হক ভূঁইয়া, নিয়াজ মো. খান, ইকবাল চৌধুরী, অধ্যাপক নুরুল আলম রাজু, এসএম আবুল ফয়েজ, আশরাফ চৌধুরী, আরইউ চৌধুরী শাহীন, আহমেদুল আলম চৌধুরী রাসেল, জাহাঙ্গীর আলম দুলাল, আবুল হাশেম, মন্জুর আলম মন্জু, আনোয়ার হোসেন লিপু, মন্জুর আলম চৌধুরী মন্জু, মো. কামরুল ইসলাম।

আরো পড়ুন