বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২

যুবলীগ নেতাকে জেএসএসের মারধর, উত্তাল কাপ্তাই

প্রকাশিত: মঙ্গলবার, নভেম্বর ৮, ২০২২

কাপ্তাই (রাঙামাটি) প্রতিনিধি ::

রাঙ্গামাটির কাপ্তাই উপজেলার চিৎমরম ইউনিয়নে সেনা ক্যাম্প স্থাপনের দাবিতে কাপ্তাই নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর বরাবরে স্মারকলিপি দিয়েছে উপজেলা আওয়ামী লীগ।

মঙ্গলবার (৮ নভেম্বর) কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুনতাসির জাহানের হাতে স্মারকলিপি তুলে দেন নেতৃবৃন্দ।

এরআগে চিৎমরম ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুর রহমানকে জেএসএস সশস্ত্র সন্ত্রাসী কর্তৃক মারধরের ঘটনায় বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে কাপ্তাই উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

সোমবার সন্ধায় উপজেলার ৩নং চিৎমরম জেলা পরিষদ রেস্ট হাউজ থেকে যুবলীগ নেতা হাবিবুর রহমানকে জেএসএস সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা হত্যার উদ্দেশ্যে ধরে নিয়ে যায়।

পরে তাকে বেদমপ্রহর করে বৌদ্ধ বিহারের মাঠে মুমূর্ষ অবস্থায় ফেলে রেখে চলে যায়। দলের নেতাকর্মীরা আহত হাবিবুর রহমানকে রাতে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য চন্দ্রঘোনা খ্রীষ্টিয়ান হাসপাতালে নেয়।

পরবর্তীতে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাঁকে রাতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। রাতে এ সংবাদ শুনে আ’লীগ ও যুবলীগ নেতাকর্মীর মাঝে উত্তেজনা দেখা দেয় এবং সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে।

পরের দিন মঙ্গলবার কাপ্তাই উপজেলা আওয়ামী লীগ প্রতিবাদ সভা ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে।

বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে চিৎমরম জরুরী ভাবে সেনা ক্যাম্প স্থাপনের দাবি জানিয়ে নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

এসময় কাপ্তাই উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি অংসুইছাইন চৌধুরী, রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মফিজুল হক, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক মো. হানিফ, কাপ্তাই উপজেলা আওয়ামী লীগ সিনিয়র সহ সভাপতি থোয়াইচিং মং মারমা, সহ সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরী বেবী, সহ-সভাপতি প্রকৌশলী আব্দুল লতিফ, কাজী মাকসুদুর রহমান বাবুল, ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক আব্দুল ওহাব, সাংগঠনিক সম্পাদক আক্তার হোসেন মিলন, কাপ্তাই উপজেলা যুবলীগ সভাপতি মো. নাছির উদ্দীন।

সমাবেশে কাপ্তাই উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি অংসুই ছাইন চৌধুরী বলেন, চিৎমরমে জেএসএসের সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের হুমকি ধামকি দিচ্ছে এবং ইতিমধ্যে তারা অনেক নেতাকর্মীকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে এবং অনেক নেতাকর্মীকে হত্যার উদ্দেশ্যে মারধর করছে। এঘটনায় এলাকাজুড়ে অনেক আতংক বিরাজ করছে।

তাই দ্রুত সময়ে চিৎমরম ইউনিয়নে স্থায়ী সেনাক্যাম্প স্থাপনের জন্য জোর দাবী জানান তিনি।

আরো পড়ুন