শনিবার, ২৮ মে ২০২২

মানুষের মৃত্যুতে নয়, মনুষ্যত্বের মৃত্যুতে কষ্ট হয়

প্রকাশিত: রবিবার, ফেব্রুয়ারী ৬, ২০২২

ড. মুহম্মদ মাসুম চৌধুরী

সাহিত্যিক আসহাব উদ্দিন আহমদ লেখেছেন, ‘আমাদের যুগে আমরা কাঁচা ঘরে বাস করে লেখাপড়া করছি পাকা, আজকের যুগে পাকা ঘরে বাস করে লেখাপড়া করে কাঁচা’।

আমরা আধুনিক হচ্ছি। সব কিছুর উন্নতি হচ্ছে। ফ্লাইওভার হচ্ছে, ব্রিজ, টার্নেল হচ্ছে, মেট্রো, বিমানবন্দর, আধুনিক বিল্ডিং সবই হচ্ছে।

এ প্লাস, গোল্ডেন এ প্লাস এবং শিক্ষার হার বাড়ছে, কিন্তু প্রকৃত মানুষের সংখ্যা দিন দিন কমছে।

বাড়ছে জনসংখ্যা কমছে মানুষ। বাড়ছে পরীক্ষার্থী কমছে শিক্ষার্থী, মনকে জাগানোর আলোকিত শিক্ষা দিনে দিনে কমছে।

রবীন্দ্রনাথ বলেছেন, ‘শিক্ষার লক্ষ্য হল মনুষ্যত্ব লাভ, জীবনকে সবদিক থেকে উদ্বোধিত করা, প্রাণকে সম্পূর্ণ ভাবেব জাগানো, আপনাকে বিকশিত করা, পরিপূর্ণ হওয়া’। বর্তমান আমাদের শিক্ষা শিক্ষিত সমাজকে বিপরীত অবস্থানে নিয়ে যাচ্ছে।

অর্থনীতিবিদ আবদুল বারাকাত বলেছেন, আনুষ্ঠানিক মেধাবী’রা আত্মকেন্দ্রীক ও দুর্নীতিগ্রস্ত হন। দেশের বি সি এস পরীক্ষার্থীদের অধিকাংশের পছন্দ কাস্টমস, এরপর কর বিভাগ, তারপর পুলিশ। শিক্ষা বিভাগ পছন্দের তালিকায় ১৬ বা ১৭ নম্বরে। কারণ শিক্ষা বিভাগে ‘আয়’ কম। এক জরিপে দেখা গেছে, বেশীর ভাগ ভালো মানুষ প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষিত নন। শিক্ষিত হলেও পরীক্ষায় ভালো ফল করেনি।

কিন্তু এরা মানুষের কল্যাণে কাজ করেছে। আমি শিক্ষিত হিসেবে দেখেছি, বেশীর ভাগ ভালো ছাত্র খারাপ মানুষ। বেশির ভাগ ‘মাঝারি’ ছাত্র ভালো মানুষ। মনুষ্যত্বের শিক্ষা, মূল্যবোধের শিক্ষা না থাকলে কোন জাতি এগিয়ে যেতে পারে না। মূল্যবোধের শিক্ষা আস্তে আস্তে হারিয়ে যাচ্ছে।

মোতাহের হোসেন চৌধুরী তাঁর ‘মনুষ্যত্ব’ প্রবন্ধে লিখেছেন, ‘শিক্ষার আসল কাজ জ্ঞান পরিবেশন নয়, মূল্যবোধ সৃষ্টি। জ্ঞান পরিবেশন মূল্যবোধ সৃষ্টির উপায় হিসেবেই আসে। তাই যেখানে মূল্যবোধের মূল্য দেওয়া হয় না, সেখানে শিক্ষা নেই’।

আমাদের সন্তানরা রবীন্দ্র-নজরুল-সেক্সপিয়র, আইনস্টাইন-নিউটন হতে চায় না, সবাই এখন বিল গেটস, জেফ বেজোস, বার্নার্ড আর্নল্টের, মার্ক জুকারবার্গ হতে চায়। অঢেল অর্থ বিত্তের মালিক হতে চায়, মানুষ হতে চায় না।

অভিভাবকরাও সন্তানদের ধনী হওয়ার জন্য রসদ যোগায়। কিন্তু দেশপ্রেম মানবপ্রেম জাগরেণের রসদ যোগাচ্ছিনা। আমরা চিন্তা করি না, মানব প্রেম দেশপ্রেম বর্জিত সন্তান কখনো পিতৃপ্রেম বা মাতৃপ্রেমে প্রেমিক হতে পারে না।

ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের অগাধ দেশপ্রেম মানব প্রেমি ছিল বলেই প্রচণ্ড ঝড়ের মধ্যে দামোদর নদী সাঁতরিয়ে পার হয়ে অসুস্থ মাকে দেখতে গিয়েছিলেন। রবীন্দ্রনাথ লিখেছেন, ‘মনুষ্যত্বের শিক্ষাটাই চরম শিক্ষা, আর সমস্ত শিক্ষা তার অধিন’।

আমাদের সমাজ লোভের কারণে মনুষ্যত্বে শিক্ষা হারিয়ে ফেলছে। মনুষ্যত্বের বিষয়ে অসাধারণ কথাটি বলেছেন, পশ্চিম বঙ্গের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ডা. বিধান চন্দ্র রায়।

তিনি বলেছেন, ‘লোভী ব্যক্তিরা অনেক ক্ষেত্রে তার কাঙ্খিত বস্তু লাভ করে বটে, কিন্তু হারায় তার সবচেয়ে বড় সম্পদ মনুষ্যত্ব’।

বিজ্ঞান প্রযুক্তি চরম উন্নতির কালে মনুষ্যত্বের অধোগতিতে মানসিক কষ্ট পাই।

মনীষী শরৎচন্দ্র বলেছিলেন, মানুষের মৃত্যুতে আমি দুঃখ পাই না, মনুষ্যত্বের মৃত্যুতে আমি দুঃখ পাই। মানুষের জন্ম হয়েছে মৃত্যুবরণ করার জন্য। কিন্তু মনুষ্যত্বের মৃত্যু হওয়ার কথা ছিল না।

পশুকে পশুত্ব অর্জনের জন্য স্কুল কলেজে যেতে হয় না, কোন ধ্যান জ্ঞানের প্রয়োজন হয় না। প্রকৃতির নিয়মে পশুত্ব অর্জিত হয় না। কিন্তু মানুষের মনুষ্যত্ব অর্জনের জন্য জ্ঞান ধ্যান, সাধনার প্রয়োজন হয়।

আরো পড়ুন