বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২

মাইডাস সেফটি বাংলাদেশের জৈব সার ও বৃষ্টির পানি সংরক্ষণের প্রজেক্ট উদ্বোধন

প্রকাশিত: মঙ্গলবার, জুন ২১, ২০২২

নগর প্রতিবেদক::

নগরীর ইপিজেডের কানাডিয়ান বহুজাতিক হ্যান্ড গ্লোভস প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান “মাইডাস সেফটি বাংলাদেশ” কতৃক ২২০ kw সোলার প্ল্যান্ট, ভার্মি কম্পোস্ট (জৈব সার) এবং রেইন ওয়াটার হার্ভেস্টিং (বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ) প্রকল্প উদ্বোধন করা হয়েছে।

এতে অতিথি ছিলেন বন্ড কমিশনার একেএম মাহবুবুর রহমান এবং “মাইডাস সেফটি বাংলাদেশ”-এর কান্ট্রি হেড ও সিইও (ডিস্ট্রিবিউশন) আব্বাস মুস্তফা কাসেম, জয়েন্ট কমিশনার কামনা শীষ, ডেপুটি কমিশনার তপন কুমার চক্রবর্তী, মহা-ব্যবস্থাপক মইনুল হোসাইন।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই অতিথিবৃন্দ “মাইডাস সেফটি বাংলাদেশ”-এর প্রাঙ্গণে বৃক্ষরোপণ করেন।

এসময় ইপিজেড কাস্টমস শাখার রাজস্ব কর্মকর্তা নীল রতন বিশ্বাস, সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা বজলুর রহমান, হাফিজুর রহমান সহ প্রতিষ্ঠানের বিভাগীয় প্রধানদের মধ্যে মাকসুদুল হাসান, রাজা রিজওয়ান আহমেদ, আবু নাসের মোঃ হেলাল, মেহেদী হাসান, মোহাম্মদ আরিফ খান, গোলাম রহমান রনবি, আশরাফুল করিম, কৌশিক সাহা, রুবেল বড়ুয়া, রেজাউল করিম, প্রণব সেনসহ কোম্পানীর অন্যান্য উর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এসময় প্রতিষ্ঠানের প্রধান অতিথি বলেন, মাইডাস সেফটি বাংলাদেশ কতৃক পরিবেশ সহায়ক প্রকল্পগুলো অন্যান্য ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করেছে। আমি সরকারের সাসটেইনেবিলিটি মিশন অর্জনের লক্ষ্যে মাইডাস সেফটি বাংংলাদেশের এই ধরণের কার্যক্রমের সর্বোচ্চ সহায়তা করে পাশে থাকবে।

প্রতিষ্ঠানের কান্ট্রি হেড আব্বাস মুস্তফা কাসেম বলেন, “মাইডাস সেফটি” বাংলাদেশের জনসাধারণের আর্থ সামাজিক, জীবনমান ও শিক্ষার মান উন্নয়নে বাংলাদেশের মানুষের পাশে থাকবে এবং ভবিষ্যতেও এই ধরনের কার্যক্রম অব্যাহত রাখবে।

প্রতিষ্ঠানের মহাব্যবস্থাপক মইনুল হোসাইন বলেন বলেন, “সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে পরিচালিত বিভিন্ন কার্যক্রমের পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, বেপজা স্কুল অ্যান্ড কলেজ, চট্টগ্রাম, চট্টগ্রাম ইপিজেড হাসপাতাল, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এবং চট্টগ্রাম ফিল্ড হাসপাতালকে সার্জিক্যাল গ্লভস সহ অন্যান্য সুরক্ষা সামগ্রী অনুদান হিসেবে প্রদান করা হয়। এবং ভবিষ্যতেও মাইডাস সেফটি বাংলাদেশ সামাজিক ও পরিবেশ সম্মত কার্যক্রম অব্যাহত রাখবেন বলে জানান।”

এখানে আরো উল্লেখ্য যে “মাইডাস সেফটি বাংলাদেশ” ২০১০ সাল থেকে শতভাগ রপ্তানীমুখী প্রতিষ্ঠান হিসেবে আইন-কানুন মেনে চট্টগ্রাম ইপিজেডে সফলতার সাথে তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে।

আরো পড়ুন