বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২

বাংলাদেশকে পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত করেছে সরকার : শামীম

প্রকাশিত: শুক্রবার, আগস্ট ৫, ২০২২

নগর প্রতিবেদক::

আওয়ামী লীগ সরকার অবৈধ ক্ষমতার মসনদ টিকিয়ে রাখার জন্য বাংলাদেশকে পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম।

তিনি বলেন, জনগণের নায্য আন্দোলনে পুলিশ ভোলায় নির্বিচারে গুলি চালিয়ে স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা আবদুর রহিম ও ভোলা জেলা ছাত্রদলের সভাপতি নুরে আলমকে হত্যা করেছে। আর এর মাধ্যমে জনগণের দাবিকে উপেক্ষা করে সরকার অবৈধ ক্ষমতার মসনদ টিকিয়ে রাখার জন্য পুলিশ প্রশাহনসহ রাষ্ট্র যন্ত্রকে ব্যবহার করছে।

শুক্রবার বিকেলে কর্ণফুলী উপজেলার ফকিরনীর হাট একটি কমিউনিটি সেন্টারে বড়উঠান ইউনিয়ন বিএনপির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মাহবুবের রহমান শামীম বলেন, শহীদ আবদুর রহিম ও নুরে আলমের রক্তে এ দেশের মানুষের ভোটের অধিকার, সাংবিধানিক অধিকার ও ভোটাধিকার পুনরুদ্ধার হবে। কোন স্বৈরাচারী সরকার বেশিদিন টিকে থাকতে পারেনি, এই সরকারও পারবে না। বিদ্যুৎ খাতে লুটপাটের মাধ্যমে এদেশকে সরকার অন্ধকারের দিকে নিয়ে গেছে। এর থেকে আমাদের উত্তোরনের জন্য শেখ হাসিনা সরকারের পতন ঘটাতে হবে। শেখ হাসিনা সরকারের পতন হলেই গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার হবে এবং জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা হবে। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া মুক্তি পাবে এবং দেশনায়ক তারেক রহমান দেশে ফিরে আসবে।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় রেখে ২০১৪-১৮ সালের মতো নির্বাচন আর এই দেশে হবে না। আগামী নির্বাচনের আগেই নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা পুনর্বহাল করতে হবে। আর সেই তত্ত্বাবধায়ক সরকার একটি স্বাধীন নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠন করবে। এই নির্বাচন কমিশনের অধীনেই আগামী নির্বাচন হবে। আর সেই নির্বাচনেই বিএনপি সহ সকল রাজনৈতিক দল অংশ নিবে।

সম্মেলনের প্রধান বক্তার বক্তব্যে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সুফিয়ান বলেন, কর্ণফুলী উপজেলা বিএনপির ঘাঁটি। আজকের সম্মেলনের মাধ্যমে তা আবারো প্রমাণিত হয়েছে। সরকার যত হামলা মামলা নির্যাতন করুক, বিএনপিকে জনগণের কাছ থেকে দূরে সরানো যাবে না। জনগণের অধিকার আদায়ের বিএনপির চলমান আন্দোলনে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে ঝাঁপিয়ে পড়ার আহ্বান জানান তিনি।

সম্মেলনের বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির সদস্য সচিব মোস্তাক আহমেদ খান বলেন, আওয়ামী লীগ অবৈধ ভাবে ভোট ডাকাতি করে ক্ষমতায় টিকে আছে। জনগণের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে সারাদেশে লুটপাটের রাজত্ব কায়েম করেছে। একদিকে উন্নয়নের কথা বলছে, অপরদিকে মহাদূর্নীতিতে নিমজ্জিত হয়েছে। আগামী দিনে সকল আন্দোলন সংগ্রামে নেতাকর্মীদের আহ্বান জানান তিনি।

বড়উঠান ইউনিয়ন বিএনপির আহ্বায়ক মোঃ ইদ্রিস হায়দারের সভাপতিত্বে সদস্য সচিব এস এম ফারুক হোসেনের পরিচালনায় সম্মেলনের উদ্বোধন করেন কর্ণফুলী উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক এস এম মামুন মিয়া। বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য এডভোকেট মোঃ ফোরকান, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আনোয়ার হোসেন লিপু, বোয়ালখালী উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক হাজী ইসহাক চৌধুরী, কর্ণফুলী উপজেলা বিএনপির সদস্য সচিব হাজী মোহাম্মদ ওসমান, যুগ্ম আহ্বায়ক গিয়াস উদ্দিন ফয়সাল, আবদুল গফুর মেম্বার, আব্দুল কাদের, মোঃ হোসেন বাবুল, সোলেমান দোভাষী, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবদলের সহ-সভাপতি মোঃ আবু তাহের, যুবদল নেতা জাহেদ শামীম, নুরুল ইসলাম, স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা ফারুক, দিদারুল আলম ছাত্রদল নেতা কামরুদ্দিন সবুজ, শাখাওয়াত হোসেন মিশু, এ.জে. চৌধুরী কলেজ ছাত্রদলের আহ্বায়ক মোঃ হারুন, সদস্য সচিব মোঃ ফরহাদ সহ প্রমুখ।

সম্মেলনে বড়উঠান ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি পদে ইদ্রিস হায়দার ও এস এম ফারুক হোসেন সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন।

আরো পড়ুন