রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩

বঙ্গবন্ধু টানেলে কোন গাড়ির কত টোল

প্রকাশিত: রবিবার, জানুয়ারী ৮, ২০২৩

নগর প্রতিবেদক :

চট্টগ্রামের কর্ণফুলী নদীতে নির্মাণাধীন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান টানেলে চলতে কোন গাড়িকে কত টোল দিতে হবে, তার তালিকা নির্ধারণ করেছে বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ।

এই তালিকা অনুযায়ী গাড়িভেদে ২০০ টাকা থেকে ১০০০ টাকা দিতে হবে। সেতু কর্তৃপক্ষের প্রস্তাবিত টোলের এই হার গত ২০ ডিসেম্বর সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের অনুমোদন পেয়েছে যা অর্থ মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের অপেক্ষায়।

সেতু কর্তৃপক্ষের নির্ধারণ করা টোল অনুযায়ী, প্রাইভেট কার, জিপ ও পিকআপকে দিতে হবে ২০০ টাকা করে। শাহ আমানত সেতুতে ব্যক্তিগত গাড়ির জন্য ৭৫ টাকা এবং জিপের জন্য ১০০ টাকা দিতে হয়। আর টানেলের ভেতর চলতে হলে মাইক্রোবাসের জন্য দিতে হবে ২৫০ টাকা। শাহ আমানত সেতুতে এই হার ১০০ টাকা। ৩১ বা এর চেয়ে কম আসনের বাসের জন্য ৩০০ এবং ৩২ বা তার চেয়ে বেশি আসনের জন্য ৪০০ টাকা টোল দিতে হবে। যদিও শাহ আমানত সেতুতে নেয়া হয় যথাক্রমে ৫০ ও ১৫৫ টাকা।

এছাড়া ৫ টনের ট্রাকে ৪০০ টাকা, ৫ থেকে ৮ টনের ট্রাকে ৫০০ টাকা, ৮ থেকে ১১ টনের ট্রাকে ৬০০ টাকা টোল দিতে হবে। তবে শাহ আমানত সেতুতে টোল নেয়া হয় যথাক্রমে ১৩০, ২০০ ও ৩০০ টাকা। ট্রেইলরের (চার এক্সেল) টোল নির্ধারণ করা হয়েছে ১০০০ টাকা। শাহ আমানত সেতুতে এই হার ৭৫০ টাকা। চার এক্সেলের বেশি হলে প্রতি এক্সেলের জন্য দিতে হয় ২০০ টাকা করে।

টোলের হার নির্ধারণের বিষয়ে সেতু কর্তৃপক্ষের উপসচিব মো. আবুল হাসান বলেন, শাহ আমানত সেতু এবং দেশের বিভিন্ন সেতুর সঙ্গে তুলনা করে টানেলের টোলের হার নির্ধারণ করা হয়েছে। তবে তা এখনো প্রস্তাবিত। এটিতে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন লাগবে। আইন মন্ত্রণালয় ভেটিং করবে। এরপর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অনুমোদনের পর চূড়ান্ত করা হবে। এর মধ্যে টোলের হার পরিবর্তন হতে পারে।

গত ২৬ নভেম্বর সকালে দক্ষিণ সুড়ঙ্গের পূর্তকাজের সমাপ্তি ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এখন পর্যন্ত প্রকল্পের অগ্রগতি ৯৬ শতাংশ। বাকি কাজ চলতি জানুয়ারি মাসে শেষ হবে বলে জানিয়েছেন প্রকল্পসংশ্লিষ্ট প্রকৌশলীরা। টানেল নির্মাণে ব্যয় হচ্ছে ১০ হাজার ৩৭৪ কোটি টাকা।

আরো পড়ুন