বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২

নায়িকারাও সংসার করে, বাচ্চা নেয় এটাই স্বাভাবিক : সানাই

প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, জুলাই ২৮, ২০২২

বিনোদন ডেস্ক::

দেশের এক সময়ের আলোচিত-সমালোচিত মডেল ও অভিনেত্রী সানাই মাহবুব। শোবিজকে বিদায় জানিয়ে ধর্ম-কর্মে মনোযোগী হয়েছেন। মাস দুয়েক আগে অনেকটা গোপনেই আবু সালেহ মুসা নামে এক ব্যাংক কর্মকর্তার সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন তিনি। আপাতত সুখে সংসার করছেন তিনি।

বুধবার বিকেলে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে ইউটিউবারদের উদ্দেশে একটি দীর্ঘ স্ট্যাটাস দিয়েছেন সানাই। সেখানে নায়িকাদের নামে ভুয়া হেডলাইনে খবর প্রচারের জন্য ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তিনি।

সানাইয়ের স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো- ‘আজকের এই পোস্টটি কিছু ইউটিউবার ভাইয়াদের উদ্দেশে। প্রিয় ইউটিউবার ভাইয়ারা, আমার সালাম নেবেন। আশা করি, আল্লাহ রাব্বুল আল-আমিনের রহমতে আপনারা ভালোই আছেন। একটা রিকুয়েস্ট করব আজকে। প্লিজ নিউজের সত্যতা নিশ্চিত করে নিউজ করবেন। এগুলো আপনাদের কাছে কিছুই মনে না হতে পারে, কিন্ত আমরা যারা পাবলিক ফিগার তাদের সমস্যা হয়। কারণ, আমাদের বাবা-মা, আত্মীয়স্বজন অনেক সরল মনের মানুষ। তারা এসব মিডিয়ার মাইরপ্যাঁচ বোঝে না। তারা বোঝে না লাইমলাইট কি। তারা বোঝে না, কেন আমাদের নিয়ে নিউজ হয়।

যাই হোক আর একটা কথা বলতে চাই আপনাদের উদ্দেশে। একজন নব্বইয়ের দশকের নায়িকার সঙ্গে আমার অনেক ভালো পরিচয় আছে। এমনকি তার শ্বশুর-শ্বাশুড়ি সবার সঙ্গে আমার পরিচয় আছে। গুলশানে থাকার সুবাদে আমি প্রায়ই বিকেলে হাঁটতে শাহাবুদ্দিন পার্কে যেতাম। সেখানে তার সঙ্গে আমার পরিচয়, এরপর আস্তে আস্তে ভালো সম্পর্ক হয়। সম্প্রতি তাকে নিয়ে মিথ্যা ভিডিও বের হয়। যেগুলো তার পরিবারে বাজে প্রভাব ফেলে। সে ভেঙে পড়ে। কাছ থেকে একজন মানুষকে ভেঙে পড়তে দেখে আমার খারাপ লাগে। এ রকম আরও অনেকেই একটা সময় লোকচক্ষুর অন্তরালে চলে গেছে নিজের প্রয়োজনে, পরিবারের তাগিদে। একটা সময় সব মেয়ে সংসার করে। সে নায়িকা হোক, গায়িকা হোক কিংবা হোক পাইলট। সবাই সংসার করে, বাচ্চা নেয়, মা হয়- এটাই স্বাভাবিক।

উদাহরণস্বরূপ- বলিউড অভিনেত্রী মাধুরী দীক্ষিত, তুমুল জনপ্রিয়তা আর অর্থের হাতছানি উপেক্ষা করে ড. নেনেকে বিয়ে করে লন্ডনে পাড়ি জমান। এ রকম বহু উদাহরণ আছে নায়িকাদের সংসার জীবন নিয়ে। একটা সময়ে সবাই সংসার করে, করবে এটাই দুনিয়ার নিয়ম। ভাই প্লিজ অনুরোধ আপনাদের কাছে, কারও জীবন নিয়ে মিথ্যা ভিডিও বানিয়ে তার জীবনে সমস্যা সৃষ্টি করবেন না, প্লিজ!

‘অমুক নব্বইয়ের দশকের সেক্সি, হার্টথ্রব নায়িকা এখন কি করছে দেখুন, অমুক হট আইটেম কাকে বিয়ে করলেন দেখুন, অমুক হার্টথ্রব নায়িকা ২ বাচ্চার মা হলেন…ব্লা ব্লা ব্লা!’ এ রকম শিরোনাম দিয়ে নায়িকা কিংবা মডেলদের যাপিত জীবনে সমস্যা সৃষ্টি করবেন না, এটাই অনুরোধ। ভাই ২০ বছর বয়সে একটা মেয়ে নায়িকা হতেই পারে, ৪৫ বছর বয়সেও কি সে নায়িকা থাকবে, থাকতে পারবে? তখন সে স্বাভাবিক নিয়মে ২-৩ বাচ্চার মা হবে, বাচ্চাদের দেখাশোনা করবে-এটাই প্রকৃতির নিয়ম। এটা অস্বাভাবিক কিছু না। যুগ যুগ ধরে মহানায়িকারাও এটাই করেছেন। বিয়ে করেছেন, ঘর করেছেন, বাচ্চা জন্ম দিয়েছেন। এটা অস্বাভাবিক কিছু না তো! তাই দয়া করে এত রংচং মাখানোর দরকার নেই।’

প্রসঙ্গত, সানাইয়ের অধিকাংশ কাজই সমালোচিত। একটা সময় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে খোলামেলা বিচরণ ছিলো তার। অশ্লীলতার অভিযোগে ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে ডিএমপির সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম ইউনিটের সাইবার নিরাপত্তা ও অপরাধ দমন বিভাগে হাজিরাও দিয়েছিলেন। সে সময় মুচলেকায় সই করে ছাড়া পান।

এ ছাড়া আওয়ামী লীগের এক মন্ত্রীকে বিয়ে করছেন বলে আলোচনায় আসেন তিনি। যদিও পরে শোনা যায়, মন্ত্রী নয় এমপিকে বিয়ে করছেন। সে সময় তিনি এমপির পরিচয় গোপন রেখেছিলেন। গত বছর অভিনয় ছেড়ে দেওয়ার ঘোষণা দেন সানাই। তারপর থেকেই আর আলোচনায় নেই তিনি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সচল থাকলেও আগের মতো খোলামেলাভাবে আর দেখা যায় না তাকে।

আরো পড়ুন