শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২

ডা.শাহাদাত হোসেনের মুক্তির দাবী চট্টগ্রাম মহানগর মহিলা দলের

প্রকাশিত: রবিবার, এপ্রিল ১৮, ২০২১

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহবায়ক কারাবন্দী ডা. শাহাদাত হোসেন ও মহানগর মহিলাদলের সভাপতি মনোয়ারা বেগম মনি, যুগ্ম সম্পাদক আখি সুলতানা, প্রচার সম্পাদক দেওয়ান মাহমুদা আক্তার লিটা, ফাতেমা কাজল, রিনা বেগম সহ গ্রেফতারকৃত ১৭ জন নেতাকর্মীর মুক্তির দাবী জানিয়েছেন চট্টগ্রাম মহানগর মহিলাদলের সাধারণ সম্পাদক জেলী চৌধুরী, সহ সভাপতি জেসমিনা খানম, সি. যুগ্ম সম্পাদক ছকিনা বেগম ও সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুন্নাহার লিজা।

রবিবার (১৮ এপ্রিল) এক যুক্ত বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন,
বর্তমান সরকার রাতের ভোটে অবৈধভাবে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই জনগনকে ভয় দেখিয়ে চিরকাল রাষ্ট্রক্ষমতা দখলে রাখার জন্য গুম, খুন, হামলা, মামলা ও গ্রেফতারের মাধ্যমে দেশ শাসন করছে। তারা বিরোধী মতকে নিষ্টুরভাবে দমন করছে। যাতে তাদের অন্যায় অপকর্মের বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করার সাহস না পায়। এর ধারাবাহিকতায় চট্টগ্রামে বিএনপির সমাবেশে পুলিশ হামলা চালিয়ে সভা পন্ড করে উল্টো ডা.শাহাদাত হোসেন ও মনোয়ারা বেগম মনি সহ নিরাপরাধ নেতাকর্মীদের কারাগারে বন্দি করে রেখেছে। বিএনপি নেতা মাহবুবের রহমান শামীম, আবুল হাশেম বক্কর ও আবু সুফিয়ান সহ সিনিয়র নেতাদের মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করছে। স্বাধীন দেশের পুলিশ এখন আওয়ামীলীগের দলীয় কর্মীতে পরিণত হয়েছে। দেশকে বানানো হয়েছে পুলিশি রাষ্ট্র। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ওপর নির্ভর করেই বর্তমান অবৈধ সরকার গায়ের জোরে ক্ষমতায় ঠিকে আছে।

নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে ডা.শাহাদাত হোসেন ও মনোয়ারা বেগম মনিসহ গ্রেফতারকৃত নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবি জানান। একই সাথে কেন্দ্রীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্কর, দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহবায়ক আবু সুফিয়ান, মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক এস এম সাইফুল আলম, নাজিমুর রহমান, ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, শাহ আলমসহ নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত ষড়যন্ত্রমূলক মামলা প্রত্যাহারের জোর দাবি জানান।

আরো পড়ুন