মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২

টেকনাফে উস্কানিমূলক বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে, ইসলামী আন্দোলনের নেতা গ্রেফতার

প্রকাশিত: সোমবার, এপ্রিল ১২, ২০২১

টেকনাফে সহিংসতা, সড়ক অবরোধ, টায়ার জ্বালিয়ে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি ও বিক্ষোভ মিছিলের মাধ্যমে উসকানিমূলক বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে হেফাজতের একজন নেতা ও ইউপির চেয়ারম্যান প্রার্থীকে আটক করেছে পুলিশ।

তিনি ২ নং হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে পীর সাহেব চরমোনাই মনোনীত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ টেকনাফ উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক হাফেজ মাওলানা নুরুল হোসেন ফাহিম ( ৩০)। তিনি টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের পানখালী বাসিন্দা কবির আহমদের ছেলে।

শনিবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে উপজেলার হ্নীলা বাস ষ্টেশন এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়েছে। আটক ওই ব্যক্তির নাম হাফেজ মাওলানা নুরুল হোসেন ফাহিম। তিনি ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ টেকনাফ উপজেলার সাংগঠনিক সম্পাদক ও হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদের হাত পাখা মার্কা প্রতীকের প্রার্থী এবং স্থানীয়ভাবে হেফাজতে ইসলামের সংগঠক হিসেবে কাজ করছিলেন।

এ তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মো হাফিজুর রহমান।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ হাফিজুর রহমান বলেন, হেফাজতের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকের পক্ষে রাষ্ট্রবিরোধী ও দাঙ্গা-হাঙ্গামা হতে পারে—এমন ধরনের উসকানিমূলক বক্তব্য দিয়ে আসছিলেন।

এ ছাড়া গত ২৮ মার্চ হেফাজতে ইসলামের ডাকা হরতালের সময় তিনি টেকনাফ-কক্সবাজার আঞ্চলিক মহাসড়কের বিভিন্ন স্থানে বিদ্যুৎ খুঁটি , কুরআন শরীফ নিয়ে সড়কে শিক্ষার্থীদের অবরোধ ও গাড়ির টায়ার জ্বালিয়ে এলাকায় সর্বসাধারণের চলাচলের প্রতিবন্ধকতায় যুক্ত ছিলেন পাশাপাশি বিক্ষোভ মিছিলের নেতৃত্ব দেওয়ার প্রমাণ পাওয়া গেছে।

ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে শনিবার দিবাগত রাতে তাঁকে আটক করা হয়। পরে তাঁকে বিজ্ঞ বিচারক হাকিম এর মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ জানায়, টেকনাফ উপজেলা হ্নীলা এলাকায় টেকনাফ-কক্সবাজার আঞ্চলিক সড়কে কোরআন শরিফসহ শিক্ষার্থীদের নিয়ে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ মিছিলের সহিংসতার ঘটনায় টেকনাফ থানায় দায়ের করা মামলায় আটক হাফেজ মাওলানা নুরুল হোসেন ফাহিমকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

আরো পড়ুন