মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২

জ্ঞানভিত্তিক সমাজ গঠনে গবেষণাধর্মী কাজের উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে: অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক

প্রকাশিত: বুধবার, এপ্রিল ২৮, ২০২১

“বর্তমানে বিশব্যাপি কোভিড-১৯ অতিমারির ফলে শিক্ষাখাত সহ সকল খাতই হুমকিতে রয়েছে। সেই সাথে এর প্রভার পড়েছে মানুষের জীবন-জীবিকায়। যা উত্তোরণে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিতে সরকারের শিক্ষাখাতে পর্যাপ্ত বরাদ্দ রয়েছে। এসডিজি লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সরকার সঠিক পথেই রয়েছে। এ অগ্রগতি অব্যাহত থাকলে ২০৩৫ এর মধ্যেই আমরা আমাদের লক্ষ অর্জন করতে সক্ষম হবো বলে আমি মনে করি। শিক্ষায় অনানুষ্ঠানিক শিক্ষার প্রতি গুরুত্ব দেওয়ার সময় এসেছে। জ্ঞানভিত্তিক সমাজ গঠনে আমরা পিছিয়ে আছি, গবেষণাধর্মী কাজে আমাদের আরো বেশি মনোযোগী ও উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন চট্টগ্রামের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) জনাব এস এম জাকারিয়া।


প্রতিবছর এপ্রিল মাসের শেষ সপ্তাহে শিক্ষার অগ্রগতি পর্যালোচনা পূর্বক একটি নির্দ্দিষ্ট বিষয়ে নীতি নির্ধারকদের দৃষ্টি আকর্ষণ ও পরবর্তী করণীয় নির্ধারণের লক্ষ্যে বিশ্বব্যপী “শিক্ষা বিষয়ক গ্লোবাল অ্যাকশন সপ্তাহ” উদযাপন করা হয়। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রায় চতুর্থ লক্ষ্য অনুযায়ি- সবার জন্য অন্তর্ভূক্তিমূলক ও সমতাভিত্তিক মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিতকরণ এবং জীবনব্যাপী শিক্ষার সুযোগ তৈরি করার জন্য বাজেট পর্যাপ্ত বৃদ্ধি করার জন্য এডভোকেসি করার উদ্দেশ্য নিয়ে এবারের এ দিবসটি উদযাপন করা হচ্ছে।

শিক্ষায় সরকারি বরাদ্দ (পাবলিক অর্থায়ন) বৃদ্ধিকে সুরক্ষিত করার জন্য এডভোকেসি করা যার ফলে সবার জন্য অন্তর্ভূক্তিমূলক ও সমতাভিত্তিক মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিতকরণ এবং জীবনব্যাপী শিক্ষার সুযোগ তৈরি করা যায়। এ লক্ষকে সামনে রেখে এডুকেশন আউটলাউড-এর সহযোগিতায় গণসাক্ষরতা অভিযান ও যুগান্তর সমাজ উন্নয়ন সংস্থা (জেএসইউএস)-এর আয়োজনে ২৮ এপ্রিল ২০২১ আয়োজন করা হয় “শিক্ষার জন্য অধিক ও মানসম্মত বিনিয়োগ” শীর্ষক যৌথ অনলাইন জুম এডভোকেসী সভা অনুষ্ঠিত হয়।

জেএসইউএস নির্বাহী পরিচালক ইয়াসমীন পারভীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ ভার্চুয়াল সভায় শুভেচ্ছা বক্তব্য ও সভার মূল বিষয় পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন জেএসইউএস পরিচালক কবি ও প্রাবন্ধিক সাঈদুল আরেফীন। তিনি তার উপস্থাপনায় বেশ কিছু সুপারিশমালা উপস্থাপন করেন।

জেএসইউএস প্রোগ্রাম কোঅর্ডিনেটর (এসডিপি) মোহাম্মদ ওবায়দুর রহমানের সঞ্চালনায় আয়োজিত ভার্চুয়াল সভায় সম্মানিত অতিথি হিসেবে যুক্ত ছিলেন চট্টগ্রাম জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপপরিচালক মোহাম্মদ শহীদুল ইসলাম, উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোর চট্টগ্রাম জেলার সহকারী পরিচালক জুলফিকার আমিন, চট্টগ্রাম জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের সকারী অফিসার হৃষীকেশ শীল।


এছাড়াও আরো সংযুক্ত ছিলেন শিক্ষক সংগঠনের প্রতিনিধি মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর, অঞ্চল চৌধুরী, এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেনের অধ্যাপক মাসুদুর রহমান, শিক্ষা গবেষক শামসুদ্দিন শিশির, এসডিজি ইয়ুথ ফোরাম সভাপতি নোমান উল্লাহ বাহার, এসএমসি সদস্য নাসরিন সুলতানা, আনিস খোকন, গণমাধ্যমকর্মী শফিকুল ইসলাম খান, মরিয়ম জাহান মুন্নি, শিশুকিশোর মাসিক কথন সম্পাদক ফারুক হাসান, চট্টগ্রামে কর্মরত উন্নয়ন সংস্থা সংশপ্তক নির্বাহী পরিচালক লিটন চৌধুরী, ঢাকা আহছানিয়া মিশনের জেলা প্রোগ্রাম ম্যানেজার এস এম কামরুল ইসলাম-সহ বিভিন্ন সংগঠনের প্রতিনিধি, বিদ্যালয়ের শিক্ষক, অভিভাবক ও শিক্ষার্থী প্রতিনিধিবৃন্দ।

জেএসইউএস নির্বাহী পরিচালক সভাপতির বক্তব্যে বলেন, “গণসাক্ষরতা অভিযান ও জেএসইউএস’র আয়োজিত এ সভা থেকে প্রাপ্ত সুপারিশমালার সমন্বয়ে একটি পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন প্রস্তুত করা, যা পরবর্তীতে নীতিনির্ধারণী পর্যায়ে কর্মরত সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গের সাথে এ্যডভোকেসি’র একটি  মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করা হবে। সর্বোপরি এ আয়োজনের সকলের স্বতস্ফূর্ত অংশগ্রহণের জন্য তিনি  সকলের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। সকলের সম্মিলিত প্রয়াসে শিক্ষার উন্নয়ন এগিয়ে যাবে এই প্রত্যাশা ব্যক্ত করার মধ্য দিয়ে তিনি সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

আরো পড়ুন