রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২

জুমা ও তারাবি নামাজ বিষয়ে নির্দেশনা দিবে ধর্ম মন্ত্রণালয়

প্রকাশিত: সোমবার, এপ্রিল ১২, ২০২১

ধর্ম মন্ত্রণালয়

করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ রোধ কার্যক্রমের মধ্যে শুরু হতে যাওয়া পবিত্র রমজান মাসে জুমা ও তারাবি নামাজের বিষয়ে ধর্ম মন্ত্রণালয়কে দিক নির্দেশনা দিতে বলা হয়েছে। সোমবার (১২ এপ্রিল) মন্ত্রিপরিষদ থেকে ১৩ দফা নির্দেশনায় সম্বলিত প্রজ্ঞাপনের এ কথা বল হয়।

প্রজ্ঞাপনে আগামী ১৪ এপ্রিল (বুধবার) ভোর ৬টা থেকে ২১ এপ্রিল মধ্যরাত পর্যন্ত জারি করা কঠোর বিধিনিষেধ দেওয়া হয়। সেখানে বলা হয়েছে, স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে জুমা ও তারাবি নামাজের বিষয়ে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় নির্দেশনা জারি করবে।

উল্লেখ্য, গত ৫ এপ্রিল থেকে চলমান থাকা বিধিনিষেধেও এ বিষয়ে ধর্মমন্ত্রণালয়কে পদক্ষেপের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। সে পরিপ্রেক্ষিতে ৬ এপ্রিল এক নির্দেশনায় রমজানে মসজিদে ইফতার ও সেহরির আয়োজন না করার বিষয়ে বলা হয়। এছাড়া শিশু, বৃদ্ধ, যেকোনো অসুস্থ ব্যক্তি এবং অসুস্থদের সেবায় নিয়োজিত ব্যক্তি জামায়াতে অংশগ্রহণ না করার বিষয় যুক্ত করে একটি অফিস আদেশ জারি করে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়। ওই আদেশে সংক্রমণ রোধ নিশ্চিত করতে মসজিদের ওযুখানায় সাবান/হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখার কথা বলা হয়। মসজিদে সংরক্ষিত জায়নামাজ ও টুপি ব্যবহার করা যাবে না বলেও উল্লেখ করা হয়।

এরপর ৭ এপ্রিল আরেক নির্দেশনায় সকল মসজিদে জুমা ও ওয়াক্তের নামাজের আগে ও পরে গণজমায়েত করা নিরুৎসাহিত করা হয়। অন্যান্য ধর্মীয় উপাসনালয়ের প্রার্থনার ক্ষেত্রেও একই নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

আরো পড়ুন