শনিবার, ০৮ অক্টোবর ২০২২

ছুরিকাঘাতে প্যানেল মেয়র লিটনের অনুসারীর মৃত্যু

প্রকাশিত: রবিবার, মে ৯, ২০২১

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট :

নগরীর হালিশহর থানার ছুরিকাঘাতে আহত হয়ে চারদিন চিকিৎসাধীন থাকার পর মো.সরোয়ার আলম জনি (২৮) নামের এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে।

রোববার (৯ এপ্রিল) সন্ধা সাড়ে ৭ টার দিকে বাংলানিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন হালিশহর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ আল মামুন।

মৃত মো.সরোয়ার আলম জনি নগরীর হালিশহর থানার রামপুর ওয়ার্ডের সবুজবাগ আবাসিক এলাকার নুর আলমের ছেলে।

হালিশহর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ আল মামুন জানান, স্থানীয় কয়েক জন যুবকের ঝগড়া থামাতে গেলে গত ৪ মে রাতে সরোয়ারকে ছুরিকাঘাত করা হয়।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে শনিবার রাতে সাড়ে দশটার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সরোয়ার আলম জনি মৃত্যু বরণ করেন। মরদেহ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তিনি আরও জানান, গত ৬ মে ঘটনায় মৃত মো.সরোয়ারের পিতা ৮-১০ জনের নাম উল্লেখ করে থানায় মামলা করেন। এ ঘটনায় জড়িত একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

মৃত সরওয়ার জনির বন্ধু নুর হাসান রাহাত জানান, জনি রামপুর ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগ দলীয় কাউন্সিলর ও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র আব্দুস সবুর লিটনের অনুসারী। জনি যুবলীগের রাজনীতিতে জড়িত।

গত ৪ এপ্রিল রাতে সবুজবাগ এলাকায় কিশোর গ্যাংয়ের দুই গ্রুপে প্রথমে ঝগড়া ও পরে মারামারি শুরু হয়। তারা দুই জন ঝগড়া থামাতে যান। রাহাত এক গ্রুপকে টেনে একদিকে নিয়ে যান। জনি আরেক গ্রুপকে সামলাতে থাকেন। তখন ওই কিশোর গ্রুপের এক সদস্যের ছুরিকাঘাতে আহত হন জনি।

আরো পড়ুন